ঢাকা ০৫:১৫ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জার্মানির ডাস্টবিনে সাড়ে তিনশ বছরের পুরনো মূল্যবান চিত্রকর্ম

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট : ০২:০২:৪৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ২০ জুন ২০২১
  • / 163

সংগৃহীত ছবি।

::আন্তর্জাতিক ডেস্ক::

জার্মানিতে দুই ইউরোপীয় শিল্পীর ১৭শ শতকের মূল চিত্রকর্ম রাস্তার পাশের একটি ডাস্টবিনে পাওয়া গেছে। এ বিষয়ে কেউ কোনও তথ্য জেনে থাকলে তা জানানো জন্য অনুরোধ করেছে দেশটির পুলিশ।

সিএনএনের প্রতিবেদনে জানা যায়, জার্মানির বাভারিয়া প্রদেশে মহাসড়কের পাশে গাড়ি মেরামতের স্টেশনের কাছে একটি ডাস্টবিনে চিত্রকর্ম দুটি দেখতে পান এক ব্যক্তি। ৬৪ বছর বয়সী ওই ব্যক্তি চিত্রকর্ম দুটি নিয়ে কোলন শহরের পুলিশ বিভাগের কাছে হস্তান্তর করেন।

পুলিশ কর্মকর্তারা চিত্রকর্মের মালিকের সন্ধান দিতে আবেদন জানিয়েছে। পুলিশ জানায়, শিল্প বিশেষজ্ঞরা ধারণা করছেন, এগুলো ওই শিল্পীদের মূল চিত্রকর্ম।

চিত্রকর্ম দুটির একটি হলো ইতালীয় শিল্পী পিয়েত্রো বেল্লোত্তির সেলফ-পোর্ট্রেট। এটি আঁকা হয়েছিল ১৬৬৫ সালে।

বেল্লোত্তি পোর্ট্রেট আঁকার জন্য বিখ্যাত ছিলেন। সুইজারল্যান্ডের গ্যালেরিয়া ক্যানেসোর তথ্য অনুযায়ী, বেল্লোত্তি সেসময় ভেনিস ও তার বাইরে ধনাঢ্য পরিবারগুলোর জন্য পোর্ট্রেট আঁকতেন।

আরেকটি চিত্রকর্ম হলো মাথায় লাল টুপি পরিহিত হাসিমুখের একটি ছেলে। এটির তারিখ জানা যায়নি। নেদারল্যান্ডের শিল্পী স্যামুয়েল ভ্যান হুগস্ট্রাটেনের শিল্পকর্ম এটি।

হুগস্ট্রাটেন ছিলেন একজন চিত্রকর ও লেখক। তিনি আমস্টারডামে বিখ্যাত ডাচ শিল্পী রেমব্র্যান্টের অধীনে প্রশিক্ষণ নিয়েছিলেন।

ডাচ স্বর্ণযুগের চিত্রকর্ম সংগ্রহের অন্যতম বৃহত্তম প্রতিষ্ঠান লেইডেন কালেকশন জানায়, ১৭ শতকে হেগের অভিজাত ব্যক্তিরা হুগস্ট্রাটেনকে দিয়ে পোর্ট্রেট আঁকানোর জন্য ‘লাইন ধরে থাকতেন’।

হুগস্ট্রাটেন ‘ইন্ট্রোডাকশন টু দ্য হাই স্কুল অব দ্য আর্ট অব পেইন্টিং’ নামে একটি বই লিখেছিলেন যা ১৬৭৮ সালে প্রকাশিত হয়।

এই বইতে রেমব্র্যান্টের স্টুডিওতে তার থাকার স্মৃতি উল্লেখ করা রয়েছে। যুক্তরাজ্যের ন্যাশনাল গ্যালারি বইটিকে ‘চিত্রকলার বিষয়ে রেমব্র্যান্ডের দৃষ্টিভঙ্গির তথ্যের একটি মূল্যবান উত্স’ বলে অভিহিত করেছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

জার্মানির ডাস্টবিনে সাড়ে তিনশ বছরের পুরনো মূল্যবান চিত্রকর্ম

আপডেট : ০২:০২:৪৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ২০ জুন ২০২১
::আন্তর্জাতিক ডেস্ক::

জার্মানিতে দুই ইউরোপীয় শিল্পীর ১৭শ শতকের মূল চিত্রকর্ম রাস্তার পাশের একটি ডাস্টবিনে পাওয়া গেছে। এ বিষয়ে কেউ কোনও তথ্য জেনে থাকলে তা জানানো জন্য অনুরোধ করেছে দেশটির পুলিশ।

সিএনএনের প্রতিবেদনে জানা যায়, জার্মানির বাভারিয়া প্রদেশে মহাসড়কের পাশে গাড়ি মেরামতের স্টেশনের কাছে একটি ডাস্টবিনে চিত্রকর্ম দুটি দেখতে পান এক ব্যক্তি। ৬৪ বছর বয়সী ওই ব্যক্তি চিত্রকর্ম দুটি নিয়ে কোলন শহরের পুলিশ বিভাগের কাছে হস্তান্তর করেন।

পুলিশ কর্মকর্তারা চিত্রকর্মের মালিকের সন্ধান দিতে আবেদন জানিয়েছে। পুলিশ জানায়, শিল্প বিশেষজ্ঞরা ধারণা করছেন, এগুলো ওই শিল্পীদের মূল চিত্রকর্ম।

চিত্রকর্ম দুটির একটি হলো ইতালীয় শিল্পী পিয়েত্রো বেল্লোত্তির সেলফ-পোর্ট্রেট। এটি আঁকা হয়েছিল ১৬৬৫ সালে।

বেল্লোত্তি পোর্ট্রেট আঁকার জন্য বিখ্যাত ছিলেন। সুইজারল্যান্ডের গ্যালেরিয়া ক্যানেসোর তথ্য অনুযায়ী, বেল্লোত্তি সেসময় ভেনিস ও তার বাইরে ধনাঢ্য পরিবারগুলোর জন্য পোর্ট্রেট আঁকতেন।

আরেকটি চিত্রকর্ম হলো মাথায় লাল টুপি পরিহিত হাসিমুখের একটি ছেলে। এটির তারিখ জানা যায়নি। নেদারল্যান্ডের শিল্পী স্যামুয়েল ভ্যান হুগস্ট্রাটেনের শিল্পকর্ম এটি।

হুগস্ট্রাটেন ছিলেন একজন চিত্রকর ও লেখক। তিনি আমস্টারডামে বিখ্যাত ডাচ শিল্পী রেমব্র্যান্টের অধীনে প্রশিক্ষণ নিয়েছিলেন।

ডাচ স্বর্ণযুগের চিত্রকর্ম সংগ্রহের অন্যতম বৃহত্তম প্রতিষ্ঠান লেইডেন কালেকশন জানায়, ১৭ শতকে হেগের অভিজাত ব্যক্তিরা হুগস্ট্রাটেনকে দিয়ে পোর্ট্রেট আঁকানোর জন্য ‘লাইন ধরে থাকতেন’।

হুগস্ট্রাটেন ‘ইন্ট্রোডাকশন টু দ্য হাই স্কুল অব দ্য আর্ট অব পেইন্টিং’ নামে একটি বই লিখেছিলেন যা ১৬৭৮ সালে প্রকাশিত হয়।

এই বইতে রেমব্র্যান্টের স্টুডিওতে তার থাকার স্মৃতি উল্লেখ করা রয়েছে। যুক্তরাজ্যের ন্যাশনাল গ্যালারি বইটিকে ‘চিত্রকলার বিষয়ে রেমব্র্যান্ডের দৃষ্টিভঙ্গির তথ্যের একটি মূল্যবান উত্স’ বলে অভিহিত করেছে।