অর্থনৈতিক অগ্রগতির অলীক চিত্র তৈরী করেছে সরকার

নিজস্ব প্রতিবেদক;
  • প্রকাশিত: ১ নভেম্বর ২০২১, ১১:৫৭ পূর্বাহ্ণ | আপডেট: ১ মাস আগে

ছবি সংগৃহীত

অর্থনীতির বিভিন্ন খাতে উৎপাদন বৃদ্ধির দাবি এবং তাকে সমর্থনের জন্য সরকার বিভিন্ন খাতের কল্পিত তথ্য প্রচার দেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতির একটি অলীক চিত্র তৈরী করেছে বলে মন্তব্য করেছে বিএনপি।

শনিবার বিএনপির স্থায়ী কমিটির এক ভার্চুয়াল বৈঠকে এ কথা বলা হয়েছে বলে সোমবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বৈঠকে বলা হয়, আইএমএফ এর হিসাব মতে বাংলাদেশে জুন ২০২১ এর শেষ দিকে ৪০ বিলিয়ন ডলারের যে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ থাকার কথা উল্লেখ করা হয়েছে, সরকার তা ১৫ শতাংশ বাড়িয়ে বলেছে। দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্যরা মনে করেন, বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ নিয়ে তথ্য জালিয়াতি দেশে সামগ্রিক অর্থনৈতিক চিত্র সম্পর্কে সরকারের মিথ্যাচারের নিকৃষ্ট উদাহরণ। ইতিপূর্বেও অর্থনীতির বিভিন্ন খাতে উৎপাদন বৃদ্ধির দাবি এবং তাকে সমর্থনের জন্য বিভিন্ন খাতের কল্পিত তথ্য প্রচার দেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতির একটি অলীক চিত্র তৈরী করা হয়েছে। অর্থনীতির সামগ্রিক চিত্র নিয়ে বিভ্রান্তির বিস্তারিত তথ্য সংবলিত সংবাদ সম্মেলন করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

সনাতন ধর্মালম্বীদের দুর্গাপূজায় সরকারী দল আওয়ামী লীগ ও প্রশাসনের প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ প্রশ্রয়ে সারা দেশে সহিংসতা সৃষ্টি, বিএনপি নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা, গ্রেপ্তার ও নির্যাতন অব্যাহত রাখার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বৈঠকে বলা হয়, এসব ঘটনাগুলোকে কেন্দ্র করে প্রায় ২২টি জেলায় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলুসহ প্রায় ১২ হাজার নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা এবং প্রায় ২০০ নেতা-কর্মী গ্রেপ্তার করার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয়।

‘জনগণের দৃষ্টি মূল সমস্যা, গণতন্ত্রের মুক্তির আন্দোলন থেকে অন্যত্র দৃষ্টি সরিয়ে নেয়ার হীন প্রচেষ্টা এবং গণতন্ত্রের মোড়কে এক দলীয় শাসন ব্যবস্থা বাকশাল প্রতিষ্ঠার লক্ষে বর্তমান সাম্প্রদায়িক সহিংসতা সৃষ্টি করা হচ্ছে। অবিলম্বে এই সকল মামলা প্রত্যাহার এবং গ্রেপ্তারকৃত সকল নেতা-কর্মীদের মুক্তি দাবি জানানো হয়।’

দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ অন্যান্য দেশগুলোর মধ্যে টিকাদানে সব চেয়ে পিছিয়ে আছে উল্লেখ করে বৈঠকে বলা হয়, এখন পর্যন্ত মাত্র ১ থেকে ৮ ভাগ মানুষ টিকা পেয়েছেন। ৮০ শতাংশ মানুষকে টিকার আওতায় আনতে প্রায় ২৬ কোটি টিকার প্রয়োজন। আরও শতকরা ৮০ জন মানুষকে টিকা প্রদান করতে হবে। অবিলম্বে প্রয়োজনীয় টিকা সংগ্রহের কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।

সারাদেশে দলের সাংগঠনিক কার্যক্রমে পুলিশের বাধার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বৈঠকে আরও বলা হয়, বিরোধী দলের স্বাভাবিক রাজনৈতিক কার্যক্রমে বাধা প্রদান করে সরকার গণতন্ত্রের পরিবেশকে একেবারেই সঙ্কুচিত করছে এবং বহুদলীয় গণতন্ত্রের সকল পথ বন্ধ করে একদলীয় শাসন ব্যবস্থা বাকশাল প্রতিষ্ঠার নীল নকশা বাস্তাবায়নের চক্রান্ত করছে। অবিলম্বে এই সকল প্রতিবন্ধকতা দূর করে স্বাভাবিক সাংগঠনিক কার্যক্রম পরিচালনার পথ সুগম করার আহ্বান জানানো হয়।

বৈঠকে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, বেগম সেলিমা রহমান ও ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...