ঢাকা ০২:৩৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ডেঙ্গু প্রতিরোধ জনসচেতনায় মাঠে ডিএসসিসি’র ৩৩ ন‌ং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আওয়াল হোসেন

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট : ১০:২৮:৫০ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৬ অগাস্ট ২০২১
  • / 336

::নিজস্ব প্রতিবেদক::
করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বৃদ্ধির মধ্যেই রাজধানীতে প্রতিদিনই বাড়ছে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা। রাজধানীর পুরান ঢাকায় ডেঙ্গুবাহী এডিস মশার বিস্তার রোধে মাঠে নেমেছে ৩৩ ন‌ং ওয়ার্ড কাউন্সিলর হাজী মো. আওয়াল হোসেন।গত বুধবার বিকেলে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মশা নিধন ও ডেঙ্গু প্রতিরোধ বিষয়ে জনসচেতনতা মূলক কাজের অংশ হিসেবে এই কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়।

এর নেতৃত্ব দেন আওয়াল হোসেন। ৩৩ নং ওয়ার্ডের বিভিন্ন বাড়ি বাড়ি গিয়ে ডেঙ্গু থেকে বাঁচতে বিভিন্ন আনাচে-কানাচে জমা পানি ও যেখানে সেখানে ময়লা না ফেলার অনুরোধ করেন তিনি।

এসময় ওয়ার্ড কাউন্সিলর হাজী মো. আওয়াল হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, করোনা মহামারীর মধ্যে ডেঙ্গুর প্রকোপ বেড়ে যাওয়ার প্রতিদিনই মশক নিধন ও ডেঙ্গু সম্পর্কে সচেতন করছি। বিশেষ করে আগস্টের ১ তারিখে থেকে আমার ৩৩ নং ওয়ার্ডে প্রতিটি বাসাবাড়িসহ বিভিন্ন স্থাপনায় সকালে লাভিসাইডিং চিহ্নিত ও বিকালে এডাল্টিসাইডিং-এর কার্যক্রম আরো জোরদার করা হয়েছে। দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের ডেঙ্গু প্রতিরোধ চলমান কার্যের অংশ হিসেবে এই কাজ করা হচ্ছে।নিজ বাড়ি বা বাসার আশপাশে প্রতিদিন অন্তত পাঁচ মিনিট পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম চালালেই ডেঙ্গুর প্রজনন বন্ধ করা সম্ভব।
প্রথম থেকেই এলাকাবাসীকে ডেঙ্গু সম্পর্কে সচেতন করতে মাইকিং লিফলেট বিতরণসহ নানা কার্যক্রম চালিয়ে আসছি। ডেঙ্গুর প্রকোপ না কমা পর্যন্ত এই কাজ অব্যাহত থাকবে।
তিনি বলেন, করোনাকালীন এই সময় সবাই সরকারের বিধি-নিষেধ মেনে নিজ নিজ অবস্থান থাকেন। প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আস্থা রাখুন এই আধার কেটে যাবে। করোনার থেকে বাচতে হোক আর ডেঙ্গু থেকে বাচতে হোক সচেতনতার বিকল্প নেই।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

ডেঙ্গু প্রতিরোধ জনসচেতনায় মাঠে ডিএসসিসি’র ৩৩ ন‌ং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আওয়াল হোসেন

আপডেট : ১০:২৮:৫০ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৬ অগাস্ট ২০২১

::নিজস্ব প্রতিবেদক::
করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বৃদ্ধির মধ্যেই রাজধানীতে প্রতিদিনই বাড়ছে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা। রাজধানীর পুরান ঢাকায় ডেঙ্গুবাহী এডিস মশার বিস্তার রোধে মাঠে নেমেছে ৩৩ ন‌ং ওয়ার্ড কাউন্সিলর হাজী মো. আওয়াল হোসেন।গত বুধবার বিকেলে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মশা নিধন ও ডেঙ্গু প্রতিরোধ বিষয়ে জনসচেতনতা মূলক কাজের অংশ হিসেবে এই কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়।

এর নেতৃত্ব দেন আওয়াল হোসেন। ৩৩ নং ওয়ার্ডের বিভিন্ন বাড়ি বাড়ি গিয়ে ডেঙ্গু থেকে বাঁচতে বিভিন্ন আনাচে-কানাচে জমা পানি ও যেখানে সেখানে ময়লা না ফেলার অনুরোধ করেন তিনি।

এসময় ওয়ার্ড কাউন্সিলর হাজী মো. আওয়াল হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, করোনা মহামারীর মধ্যে ডেঙ্গুর প্রকোপ বেড়ে যাওয়ার প্রতিদিনই মশক নিধন ও ডেঙ্গু সম্পর্কে সচেতন করছি। বিশেষ করে আগস্টের ১ তারিখে থেকে আমার ৩৩ নং ওয়ার্ডে প্রতিটি বাসাবাড়িসহ বিভিন্ন স্থাপনায় সকালে লাভিসাইডিং চিহ্নিত ও বিকালে এডাল্টিসাইডিং-এর কার্যক্রম আরো জোরদার করা হয়েছে। দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের ডেঙ্গু প্রতিরোধ চলমান কার্যের অংশ হিসেবে এই কাজ করা হচ্ছে।নিজ বাড়ি বা বাসার আশপাশে প্রতিদিন অন্তত পাঁচ মিনিট পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম চালালেই ডেঙ্গুর প্রজনন বন্ধ করা সম্ভব।
প্রথম থেকেই এলাকাবাসীকে ডেঙ্গু সম্পর্কে সচেতন করতে মাইকিং লিফলেট বিতরণসহ নানা কার্যক্রম চালিয়ে আসছি। ডেঙ্গুর প্রকোপ না কমা পর্যন্ত এই কাজ অব্যাহত থাকবে।
তিনি বলেন, করোনাকালীন এই সময় সবাই সরকারের বিধি-নিষেধ মেনে নিজ নিজ অবস্থান থাকেন। প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আস্থা রাখুন এই আধার কেটে যাবে। করোনার থেকে বাচতে হোক আর ডেঙ্গু থেকে বাচতে হোক সচেতনতার বিকল্প নেই।