রাঙা সাহেব পরিবহনজগতের শ্রেষ্ঠ চাঁদাবাজ

নোয়াখালী প্রতিনিধি;
  • প্রকাশিত: ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:৫৩ পূর্বাহ্ণ | আপডেট: ১ মাস আগে
সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখছেন আবদুল কাদের মির্জা। ছবি সংগৃহীত

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা বলেছেন, এই রাঙ্গা সেই রাঙ্গা। যে রাঙ্গাকে প্রধানমন্ত্রী পৌরসভার মেয়র থেকে মন্ত্রী করেছেন। আজ সেই রাঙ্গা প্রধানমন্ত্রীকে বলেন স্বৈরাচার। রাঙা সাহেব পরিবহনজগতের শ্রেষ্ঠ চাঁদাবাজ। পরিবহনজগৎকে ধুয়ে-মুছে খেয়েছেন আপনি, আজকে বড় বড় কথা বলেন।

রোববার (১৮ সেপ্টেম্বর) বেলা ১১টার দিকে বসুরহাট পৌরসভা মিলনায়তনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন কাদের মির্জা।

কাদের মির্জা বলেন, আমি অন্যায়ের কাছে মাথা নত করব না। আপনারা জানেন, ষড়যন্ত্রকারীদের নীলনকশায় বিরোধীদলীয় সাংসদ মশিউর রহমান রাঙা প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমার বিরুদ্ধে বিচার দিয়েছে। আমি নাকি সন্ত্রাসী, আমি নাকি বিতর্কিত। অথচ এই রাঙাই গোটা পরিবহনজগৎকে ধুয়ে–মুছে খেয়েছেন।

দেশে এখন দুঃশাসন চলছে মন্তব্য করে কাদের মির্জা বলেন, এরশাদের স্বৈরাচার, জিয়াউর রহমানের এগুলো দেখেছি। আজকে এগুলো কেন চলছে, বলতে পারবেন? দেশে বিরোধী দল নেই। এ জন্য এগুলো চলছে। সব একতরফা চলছে। এটা হচ্ছে দুঃশাসন, দেশে দুঃশাসন চলছে। একতরফা সব লুটপাট করছে। বলার কেউ নেই। ক্ষমতায় বেশি দিন থাকলে যা হয়, এখন সবাই আখের গোছাতে ব্যস্ত।

কাদের মির্জা বলেন, বিএনপি দুর্নীতিতে চার-পাঁচবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। আজ আপনারা চ্যাম্পিয়ন না, আরও বড় চ্যাম্পিয়ন হবেন, যদি এখন খোঁজ–খবর নেন। আপনাকে শেষ করে দিতেছে, নেত্রী। আপনার সব অর্জন শেষ করে দিতেছে। রাজনীতিবিদ, প্রশাসন দুর্নীতি করে আপনার সব অর্জন নষ্ট করে দিতেছে। ৪৭ বছর রাজনীতি করি। একজন কর্মী হিসেবে এসব মেনে নিতে পারি না।

এসময় হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে কাদের মির্জা বলেন, নোয়াখালীর রাজনীতি দ্রুত সুস্থ ধারায় না ফিরলে কোম্পানীগঞ্জে অবরোধ, বিক্ষোভ মিছিলসহ বিভিন্ন কর্মসূচি দেয়া হবে।

তিনি আরও বলেন, ব্যারিস্টার সুমন একটা বাহির হইছে। সে নাকি আওয়ামী যুবলীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক। সে একজন ওসির বিরুদ্ধে জয় বাংলা স্লোগান দেয়ায় মামলা দিয়েছে। সে (সুমন) কী করে যুবলীগ করে। আমি প্রধানমন্ত্রীকে বলবো ‘জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু’ স্লোগানকে জাতীয় স্লোগান করা হোক।

আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত সাংবাদিক মুজাক্কির (বুরহান উদ্দিন ওরফে মুজাক্কির) হত্যার ঘটনায় জড়িত একজনের নাম উল্লেখ করে আবদুল কাদের মির্জা বলেন, মুজাক্কির হত্যার ঘটনায় জড়িত ফাল্গুন (ইকবাল হোসেন ওরফে ফাল্গুন) এখন কোথায়? ঘটনার পর বাদল-রাহাত তাকে প্রথমে ভারত পাঠিয়ে দিয়েছেন। তারপর সেখান থেকে কাতারে পাঠানো হয়েছে। সঠিক তদন্ত করলে সব বেরিয়ে আসবে।

আবদুল কাদের মির্জা সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই। সংবাদ সম্মেলনে কাদের মির্জা ঘোষিত উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ইস্কান্দার হায়দার চৌধুরীসহ তার অনুসারী দলীয় নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...