ঢাকা ১১:৩৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ১৩ আশ্বিন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

১২৬ রানেই গুটিয়ে গেল আফগানিস্তান

ক্রীড়া ডেস্ক
  • আপডেট : ০৬:১২:১২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১১ জুলাই ২০২৩
  • / 59
সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে হোয়াইটওয়াশ এড়ানোর ম্যাচে জ্বলে উঠেছে বাংলাদেশি বোলাররা। ৪৫.২ ওভারে ১২৬ রান করেই গুটিয়ে গেল আফগানিস্তান। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ চার উইকেট নিয়েছে শরীফুল ইসলাম।

মঙ্গলবার চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে টস হেরে বল করতে নামে বাংলাদেশ। শেষ ম্যাচে দলে ঢুকে দুর্দান্ত বোলিং শুরু করেন পেসার শরিফুল ইসলাম। তাকে সঙ্গ দেন তাসকিন আহমেদ। তাদের তোপে ৮.২ ওভারে মাত্র ১৫ রান তুলে ৪ উইকেট হারায় সফরকারীরা।

একে একে ব্যর্থ হয়ে ফিরে যান ওপেনার ইব্রাহিম জাদরান (১), তিনে নামা রহমত শাহ (০), আগের ম্যাচে দুর্দান্ত সেঞ্চুরি করা রহমানুল্লাহ গুরবাজ (৬) ও পাঁচে নামা মোহাম্মদ নবী (১)। এর মধ্যে তিন উইকেট তুলে নেন বাঁ-হাতি পেসার শরিফুল। অন্য উইকেটটি দখল করেন পেসার তাসকিন।

ওই ধাক্কা আর সামলে উঠতে পারেনি আফগানিস্তান। অধিনায়ক হাসমতউল্লাহ শাহেদি চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন। ২২ রান করতেই তাকে বোল্ড করে দেন বাঁ-হাতি স্পিনার তাইজুল। এরপর নাজিবুল্লাহ জাদরানকে ফেরান সাকিব। মিডিয়াম পেসার আব্দুর রেহমানকে তুলে নেন শরিফুল ইসলাম।

এর মধ্যেও সাতে ব্যাট করতে নামা আফগানিস্তানের মিডিয়াম পেসার আজমতুল্লাহ ওমরজাই ফিফটি তুলে নেন। তিনি খেলেন ৭১ বলে তিন ছক্কা ও এক চারে ৫৬ রানের ইনিংস। পেসার শরিফুল ২১ রানে ৪ উইকেট নিয়ে ওয়ানডে ক্যারিয়ার সেরা বোলিং করেছেন। তাসকিন ও তাইজুল নিয়েছেন দুটি করে উইকেট।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

১২৬ রানেই গুটিয়ে গেল আফগানিস্তান

আপডেট : ০৬:১২:১২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১১ জুলাই ২০২৩
সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে হোয়াইটওয়াশ এড়ানোর ম্যাচে জ্বলে উঠেছে বাংলাদেশি বোলাররা। ৪৫.২ ওভারে ১২৬ রান করেই গুটিয়ে গেল আফগানিস্তান। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ চার উইকেট নিয়েছে শরীফুল ইসলাম।

মঙ্গলবার চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে টস হেরে বল করতে নামে বাংলাদেশ। শেষ ম্যাচে দলে ঢুকে দুর্দান্ত বোলিং শুরু করেন পেসার শরিফুল ইসলাম। তাকে সঙ্গ দেন তাসকিন আহমেদ। তাদের তোপে ৮.২ ওভারে মাত্র ১৫ রান তুলে ৪ উইকেট হারায় সফরকারীরা।

একে একে ব্যর্থ হয়ে ফিরে যান ওপেনার ইব্রাহিম জাদরান (১), তিনে নামা রহমত শাহ (০), আগের ম্যাচে দুর্দান্ত সেঞ্চুরি করা রহমানুল্লাহ গুরবাজ (৬) ও পাঁচে নামা মোহাম্মদ নবী (১)। এর মধ্যে তিন উইকেট তুলে নেন বাঁ-হাতি পেসার শরিফুল। অন্য উইকেটটি দখল করেন পেসার তাসকিন।

ওই ধাক্কা আর সামলে উঠতে পারেনি আফগানিস্তান। অধিনায়ক হাসমতউল্লাহ শাহেদি চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন। ২২ রান করতেই তাকে বোল্ড করে দেন বাঁ-হাতি স্পিনার তাইজুল। এরপর নাজিবুল্লাহ জাদরানকে ফেরান সাকিব। মিডিয়াম পেসার আব্দুর রেহমানকে তুলে নেন শরিফুল ইসলাম।

এর মধ্যেও সাতে ব্যাট করতে নামা আফগানিস্তানের মিডিয়াম পেসার আজমতুল্লাহ ওমরজাই ফিফটি তুলে নেন। তিনি খেলেন ৭১ বলে তিন ছক্কা ও এক চারে ৫৬ রানের ইনিংস। পেসার শরিফুল ২১ রানে ৪ উইকেট নিয়ে ওয়ানডে ক্যারিয়ার সেরা বোলিং করেছেন। তাসকিন ও তাইজুল নিয়েছেন দুটি করে উইকেট।