ঢাকা ০৫:৩৪ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

৬ ম্যাচে মেসির দুর্দান্ত ৯ গোল, ফাইনালে ইন্টার মায়ামি

ক্রীড়া ডেস্ক
  • আপডেট : ০৪:৫৭:০২ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৬ অগাস্ট ২০২৩
  • / 313
যুক্তরাষ্ট্রের ক্লাব ইন্টার মায়ামিতে যোগ দিয়ে ৬ ম্যাচে লিওনেল মেসির দুর্দান্ত ৯ গোলে ভর করে ফাইনালে পৌঁছে গেছে ক্লাবটি। ৪-১ গোলে উড়িয়ে তারা পৌঁছে যায় মেজর সকার লিগ কাপের ফাইনালে।

মেসি যোগ দেয়ার পরই বদলে যাওয়া দলটি প্রথমবার বড় কোনো টুর্নামেন্টের ফাইনালে ওঠার স্বাদ পেল। তুলনামূলকভাবে এগিয়ে থাকা দলটির বিপক্ষে মিয়ামির হয়ে গোল করেছেন মেসি, জর্দি আলবা, জোসেফ মার্টিনেজ ও ডেভিড রুইজ। আর ফিলাডেলফিয়ার একমাত্র গোলটি করেছেন আলেজান্দ্রো বেদোয়া।

বাংলাদেশ সময় বুধবার ভোরে লিগস কাপে ফিলাডেলফিয়া ইউনিয়নের বিরুদ্ধে সেমিফাইনালের ম্যাচে প্রায় ৩০ মিটার দূর থেকে চোখ ধাঁধানো এক গোল করেন আর্জেন্টাইন মহাতারকা। টানা ৬ ম্যাচে মেসির গোল হলো ৯টি। অভিষেকে শেষ সময়ে দুর্দান্ত ফ্রি কিকে গোল করার পর টানা তিন ম্যাচে দুটি করে গোল করেন তিনি। এরপর কোয়ার্টার-ফাইনাল ও সেমিতেও করলেন গোল।

এদিন যুক্তরাষ্ট্রের সোবারু পার্কে অনুষ্ঠিত হওয়া ম্যাচে মাঝমাঠের একটু ওপরে বল পেয়ে সামনে ছুটেন মেসি। ডান পাশ থেকে তাকে আটকাতে ছুটে এলেন প্রতিপক্ষের একজন। সামনে দুই ডিফেন্ডার, বাঁ পাশে একটু দূরে আরেকজন। তাদেরকে কাছাকাছি আসতে না দিয়ে আচমকাই শট নেন মেসি। বলটি গোলকিপারকে ফাঁকি নিয়ে আশ্রয় নেয় জালে। ম্যাচের সেটি দ্বিতীয় গোল। সেমি-ফাইনালের এক তরফা লড়াইয়ে এরপর গোল হলো আরও দুই গোল।

ফিলাডেলফিয়ার মাঠে ম্যাচের তৃতীয় মিনিটেই মায়ামিকে এগিয়ে দেন ইয়োসেফ মার্তিনেস। ভেনেজুয়েলার এই ফরোয়ার্ডের আসরে গোল হলো তিনটি। ২০তম মিনিটে মেসির সেই গোল। তার আচমকা শটে কিছু করতে পারেননি চারপাশে থাকা প্রতিপক্ষের ফুটবলাররা, গোলকিপার পারেননি বাঁ দিকে ফুল লেংথ ডাইভ দিয়েও বলের নাগাল পেতে।

প্রথমার্ধের শেষ দিকে জর্দি আলবা গোল করে অনেকটাই নিশ্চিত করে দেন মায়ামির জয়। পাল্টা আক্রমণ থেকে বল পেয়ে দারুণ ফিনিশিংয়ে বল জালে জড়ান মেসির সাবেক এই বার্সেলোনা সতীর্থ। ৭৩তম মিনিটে ফিলাডেলফিয়া একটি গোল শোধ করে বটে। তবে ম্যাচের শেষ দিকে গোল করে আবার ব্যবধান বাড়ান ইন্টার মায়ামির একাডেমি থেকে উঠে আসা ১৯ বছর বয়সী মিডফিল্ডার দাভিদ রুইস। পরে আর কোনো গোল না হওয়ায় প্রথমাবারের মতো লিগ কাপের ফাইনাল নিশ্চিতের উল্লাসে মেতে উঠে মিয়ামি।

প্রসঙ্গত, যুক্তরাষ্ট্র ও মেক্সিকোর ক্লাবগুলিকে নিয়ে আয়োজিত হয় এই লিগস কাপ। এবারের আসরে খেলছে ৪৭ দলের সবকটি। লিগস কাপের ফাইনালে উঠতে পারায় পরের মৌসুমের কনক্যাকাফ চ্যাম্পিয়ন্স কাপে খেলা নিশ্চিত হলো মায়ামির। মহাদেশীয় এই আসরে প্রথমবার খেলার যোগ্যতা অর্জন করল ক্লাবটি। লিগস কাপের ফাইনালে শনিবার রাতে মায়ামির প্রতিপক্ষ ন্যাশভিল এসসি।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

৬ ম্যাচে মেসির দুর্দান্ত ৯ গোল, ফাইনালে ইন্টার মায়ামি

আপডেট : ০৪:৫৭:০২ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৬ অগাস্ট ২০২৩
যুক্তরাষ্ট্রের ক্লাব ইন্টার মায়ামিতে যোগ দিয়ে ৬ ম্যাচে লিওনেল মেসির দুর্দান্ত ৯ গোলে ভর করে ফাইনালে পৌঁছে গেছে ক্লাবটি। ৪-১ গোলে উড়িয়ে তারা পৌঁছে যায় মেজর সকার লিগ কাপের ফাইনালে।

মেসি যোগ দেয়ার পরই বদলে যাওয়া দলটি প্রথমবার বড় কোনো টুর্নামেন্টের ফাইনালে ওঠার স্বাদ পেল। তুলনামূলকভাবে এগিয়ে থাকা দলটির বিপক্ষে মিয়ামির হয়ে গোল করেছেন মেসি, জর্দি আলবা, জোসেফ মার্টিনেজ ও ডেভিড রুইজ। আর ফিলাডেলফিয়ার একমাত্র গোলটি করেছেন আলেজান্দ্রো বেদোয়া।

বাংলাদেশ সময় বুধবার ভোরে লিগস কাপে ফিলাডেলফিয়া ইউনিয়নের বিরুদ্ধে সেমিফাইনালের ম্যাচে প্রায় ৩০ মিটার দূর থেকে চোখ ধাঁধানো এক গোল করেন আর্জেন্টাইন মহাতারকা। টানা ৬ ম্যাচে মেসির গোল হলো ৯টি। অভিষেকে শেষ সময়ে দুর্দান্ত ফ্রি কিকে গোল করার পর টানা তিন ম্যাচে দুটি করে গোল করেন তিনি। এরপর কোয়ার্টার-ফাইনাল ও সেমিতেও করলেন গোল।

এদিন যুক্তরাষ্ট্রের সোবারু পার্কে অনুষ্ঠিত হওয়া ম্যাচে মাঝমাঠের একটু ওপরে বল পেয়ে সামনে ছুটেন মেসি। ডান পাশ থেকে তাকে আটকাতে ছুটে এলেন প্রতিপক্ষের একজন। সামনে দুই ডিফেন্ডার, বাঁ পাশে একটু দূরে আরেকজন। তাদেরকে কাছাকাছি আসতে না দিয়ে আচমকাই শট নেন মেসি। বলটি গোলকিপারকে ফাঁকি নিয়ে আশ্রয় নেয় জালে। ম্যাচের সেটি দ্বিতীয় গোল। সেমি-ফাইনালের এক তরফা লড়াইয়ে এরপর গোল হলো আরও দুই গোল।

ফিলাডেলফিয়ার মাঠে ম্যাচের তৃতীয় মিনিটেই মায়ামিকে এগিয়ে দেন ইয়োসেফ মার্তিনেস। ভেনেজুয়েলার এই ফরোয়ার্ডের আসরে গোল হলো তিনটি। ২০তম মিনিটে মেসির সেই গোল। তার আচমকা শটে কিছু করতে পারেননি চারপাশে থাকা প্রতিপক্ষের ফুটবলাররা, গোলকিপার পারেননি বাঁ দিকে ফুল লেংথ ডাইভ দিয়েও বলের নাগাল পেতে।

প্রথমার্ধের শেষ দিকে জর্দি আলবা গোল করে অনেকটাই নিশ্চিত করে দেন মায়ামির জয়। পাল্টা আক্রমণ থেকে বল পেয়ে দারুণ ফিনিশিংয়ে বল জালে জড়ান মেসির সাবেক এই বার্সেলোনা সতীর্থ। ৭৩তম মিনিটে ফিলাডেলফিয়া একটি গোল শোধ করে বটে। তবে ম্যাচের শেষ দিকে গোল করে আবার ব্যবধান বাড়ান ইন্টার মায়ামির একাডেমি থেকে উঠে আসা ১৯ বছর বয়সী মিডফিল্ডার দাভিদ রুইস। পরে আর কোনো গোল না হওয়ায় প্রথমাবারের মতো লিগ কাপের ফাইনাল নিশ্চিতের উল্লাসে মেতে উঠে মিয়ামি।

প্রসঙ্গত, যুক্তরাষ্ট্র ও মেক্সিকোর ক্লাবগুলিকে নিয়ে আয়োজিত হয় এই লিগস কাপ। এবারের আসরে খেলছে ৪৭ দলের সবকটি। লিগস কাপের ফাইনালে উঠতে পারায় পরের মৌসুমের কনক্যাকাফ চ্যাম্পিয়ন্স কাপে খেলা নিশ্চিত হলো মায়ামির। মহাদেশীয় এই আসরে প্রথমবার খেলার যোগ্যতা অর্জন করল ক্লাবটি। লিগস কাপের ফাইনালে শনিবার রাতে মায়ামির প্রতিপক্ষ ন্যাশভিল এসসি।