জেলেদের কাছ থেকে মাছ লুট, একজনকে নিয়ে গেছে দস্যুরা

বরগুনা প্রতিনিধি;
  • প্রকাশিত: ২০ নভেম্বর ২০২১, ১১:০৬ পূর্বাহ্ণ | আপডেট: ৩ সপ্তাহ আগে

ছবি সংগৃহীত

বরগুনার পাথরঘাটা উপজেলার ৬০ কিলোমিটার দক্ষিণে বঙ্গোপসাগরের মোহনায় জেলেদের পিটিয়ে ট্রলার ভাঙচুর করে নগদ টাকা, মাছ ও প্রয়োজনীয় মালামাল লুট করে নিয়ে গেছে জলদস্যুরা। এ সময় ট্রলার মালিককেও ধরে নিয়ে যায় তারা।

শনিবার ভোরে এ ঘটনা ঘটে। অপহৃত নেছারউদ্দিন খান এফবি মা ট্রলারের মালিক। তার বাড়ি পাথরঘাটা উপজেলার সদর পাথরঘাটার বাদুরতলা গ্রামে।

ট্রলার মালিক সমিতি সূত্রে জানা যায়, বঙ্গোপসাগরের বিভিন্ন অঞ্চলে কয়েকদিন ধরে মাছ ধরছিলেন এপবি মা ট্রলারের জেলেরা। শুক্রবার দিনগত রাতে তারা পাথরঘাটা থেকে ৬০ কিলোমিটার দক্ষিণে বঙ্গোপসাগরের মোহনায় জাল ফেলে ঘুমিয়েছিলেন।

শনিবার ভোরে জলদস্যুর একটি দল ওই ট্রলারে আক্রমণ করে। তারা ট্রলারে থাকা মজুতকৃত জ্বালানি, মাছ, নগদ টাকা, প্রয়োজনীয় সামগ্রী লুট করে নেয়। ট্রলারে থাকা ১২ জেলেকে মারধরের পর ট্রলার মালিক নেছরউদ্দিন খানকে ধরে নিয়ে যায়।

বরগুনা জেলা মৎস্যজীবী ট্রলার মালিক সমিতির সভাপতি গোলাম মোস্তফা চৌধুরী বলেন, বাদুরতলার নেছারউদ্দিনের ট্রলারে ডাকাতির খবর পেয়েছি আমরা। দস্যুরা ট্রলার থেকে সবকিছু নিয়ে গেছে। ট্রলারটিও ভাঙচুর করেছে। ডাকাতরা ট্রলার মালিক নেছারউদ্দিনকে ধরে নিয়ে গেছে। আমাদের ধারণা মুক্তিপণের জন্য নেছারকে নিয়ে গেছে। আমরা নেছারউদ্দিনের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা চালাচ্ছি।

এ বিষয়ে কোস্টগার্ড পাথরঘাটা স্টেশন কমান্ডার লেফটেন্যান্ট ফাহিম শাহরিয়ার বলেন, আমরা এখনো সঠিক লোকেশন জানতে পারিনি। আক্রমণের শিকার ট্রলারটি পাথরঘাটা আসছে। আসার পর আমরা সঠিক তথ্য নিয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশ অনুযায়ী জেলেকে উদ্ধারের পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...