ঢাকা ০৫:২৬ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দুই মামলায় শতাধিক আসামি, নবনির্বাচিত মেম্বার কারাগারে

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট : ০৩:১৬:২৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১
  • / 151

বরিশালে ইউপি নির্বাচনে সহিংসতা

::বরিশাল প্রতিনিধি::

বরিশালের গৌরনদী উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনী সহিংসতায় ককটেল হামলায় ২ জন নিহতের ঘটনায় দুই শতাধিক ব্যক্তিকে আসামি করা হয়েছে। একটি মামলায় নবনির্বাচিত ইউপি সদস্যসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। অপর হত্যাকাণ্ডে অভিযুক্তরা এখনও রয়েছে আত্মগোপনে।

মৌজে আলী হত্যা মামলায় গ্রেপ্তারকৃত ৯ নং ওয়ার্ডের নবনির্বাচিত ইউপি সদস্য ফিরোজ মৃধা, ইমন হোসেন ও নয়ন মৃধাকে মঙ্গলবার বিকালে অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হয়। পরে বিচারক তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

মামলার বাদী বলেন, সোমবার দুপুরে ইউপি নির্বাচনে জাল ভোট দেয়ার চেষ্টাকে কেন্দ্র করে গৌরনদী উপজেলার খাঞ্জাপুর ইউনিয়নের কমলাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের বাইরে ককটেল হামলায় মৌজে আলী মৃধা নামে এক বৃদ্ধ নিহত এবং ২ জন আহত হয়।

এ ঘটনায় সোমবার রাতে নিহতের ছেলে নজরুল মৃধা বাদী হয়ে ২১ জনের নাম উল্লেখ এবং অজ্ঞাতনামা ৮০ জনকে আসামি করে গৌরনদী থানায় মামলা দায়ের করেন। এর পরপরই নবনির্বাচিত মেম্বরসহ ৩ জনকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে।

সন্ধ্যায় একই ইউনিয়নের পাঙ্গাসিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ফলাফল ঘোষণার পর সদস্যপ্রার্থী গিয়াস উদ্দিন মৃধার কর্মী-সমর্থকদের ওপর ককটেল হামলার অভিযোগ ওঠে পরাজিত প্রার্থীর সমর্থকদের বিরুদ্ধে। ওই মামলায় আবু বক্কর নামের এক ভ্যানচালক নিহত এবং ২ জন আহত হয়।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার দুপুরে তার বাবা আনজু ফকির বাদী হয়ে পরাজিত মেম্বরপ্রার্থী আরজ আলী সরদার, তার ছেলে রাব্বী সরদার ও বাবু সরদারসহ ২০ জনের নাম উল্লেখসহ এবং অজ্ঞাতনামা আরো ৮০ জনকে আসামি করে বিস্ফোরকসহ হত্যা মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় এখন পর্যন্ত কেউ গ্রেপ্তার হয়নি।

এ ব্যাপারে গৌরনদী মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. তৌহিদুজ্জামান জানান, আবু বক্কর ফকির হত্যা মামলায় শতাধিক ব্যক্তিকে আসামি করা হয়েছে। এ মামলার এজাহারভুক্ত আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। মৌজে আলী হত্যা মামলায় গ্রেপ্তারকৃত ৩ জনকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো। অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

দুই মামলায় শতাধিক আসামি, নবনির্বাচিত মেম্বার কারাগারে

আপডেট : ০৩:১৬:২৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১
::বরিশাল প্রতিনিধি::

বরিশালের গৌরনদী উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনী সহিংসতায় ককটেল হামলায় ২ জন নিহতের ঘটনায় দুই শতাধিক ব্যক্তিকে আসামি করা হয়েছে। একটি মামলায় নবনির্বাচিত ইউপি সদস্যসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। অপর হত্যাকাণ্ডে অভিযুক্তরা এখনও রয়েছে আত্মগোপনে।

মৌজে আলী হত্যা মামলায় গ্রেপ্তারকৃত ৯ নং ওয়ার্ডের নবনির্বাচিত ইউপি সদস্য ফিরোজ মৃধা, ইমন হোসেন ও নয়ন মৃধাকে মঙ্গলবার বিকালে অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হয়। পরে বিচারক তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

মামলার বাদী বলেন, সোমবার দুপুরে ইউপি নির্বাচনে জাল ভোট দেয়ার চেষ্টাকে কেন্দ্র করে গৌরনদী উপজেলার খাঞ্জাপুর ইউনিয়নের কমলাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের বাইরে ককটেল হামলায় মৌজে আলী মৃধা নামে এক বৃদ্ধ নিহত এবং ২ জন আহত হয়।

এ ঘটনায় সোমবার রাতে নিহতের ছেলে নজরুল মৃধা বাদী হয়ে ২১ জনের নাম উল্লেখ এবং অজ্ঞাতনামা ৮০ জনকে আসামি করে গৌরনদী থানায় মামলা দায়ের করেন। এর পরপরই নবনির্বাচিত মেম্বরসহ ৩ জনকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে।

সন্ধ্যায় একই ইউনিয়নের পাঙ্গাসিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ফলাফল ঘোষণার পর সদস্যপ্রার্থী গিয়াস উদ্দিন মৃধার কর্মী-সমর্থকদের ওপর ককটেল হামলার অভিযোগ ওঠে পরাজিত প্রার্থীর সমর্থকদের বিরুদ্ধে। ওই মামলায় আবু বক্কর নামের এক ভ্যানচালক নিহত এবং ২ জন আহত হয়।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার দুপুরে তার বাবা আনজু ফকির বাদী হয়ে পরাজিত মেম্বরপ্রার্থী আরজ আলী সরদার, তার ছেলে রাব্বী সরদার ও বাবু সরদারসহ ২০ জনের নাম উল্লেখসহ এবং অজ্ঞাতনামা আরো ৮০ জনকে আসামি করে বিস্ফোরকসহ হত্যা মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় এখন পর্যন্ত কেউ গ্রেপ্তার হয়নি।

এ ব্যাপারে গৌরনদী মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. তৌহিদুজ্জামান জানান, আবু বক্কর ফকির হত্যা মামলায় শতাধিক ব্যক্তিকে আসামি করা হয়েছে। এ মামলার এজাহারভুক্ত আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। মৌজে আলী হত্যা মামলায় গ্রেপ্তারকৃত ৩ জনকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো। অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।