ঢাকা ০৭:৩৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ভান্ডারিয়ায় কলেজ ছাত্রীর মৃত্যুদেহ উদ্ধার

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট : ১১:১৬:১৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৯ অগাস্ট ২০২১
  • / 134

পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়ায় আফছানা আক্তার (২২) নামে এক কলেজ শিক্ষার্থীর মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। আফছানা পিরোজপুর সরওয়ার্দী কলেজে অনার্স শেষ বর্ষের শিক্ষার্থী ও ভাণ্ডারিয়া উপজেলার নদমুল শিয়ালকাঠী ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের আলম হাওলাদারের মেয়ে।

আফছানার চাচা জামাল হাওলাদার জানান, গত ২০২০ সালে নয়ন নামে একটি ছেলের সাথে সম্পর্কের মাধ্যমে আফছানার বিয়ে হয়।

তার সাথে বুনিবোনাত না হওয়ায় ওই বছরের শেষের দিকে বিবাহ বিচ্ছেদ হয়। এর পরে উপজেলা পৌর শহরের ২ নম্বর ওয়ার্ড এলাকায় বসবাসরত খলিলুর রহমানের ছেলে সৌদী প্রবাসী সজিবের সাথে মোবাইল ফোনে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে এবং পারিবারিক ভাবে বিয়ের কথা বার্তা হয়।

কিন্তু কিছুদিন ধরে উভয়ের মধ্যে কথার কাটাকাটি হয়ে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। এতে আফছানা আত্মহত্যার পথ বেচেঁ নিয়েছে। আফসানার ছোট ভাই আফ্রিদী জানান, গতকাল রবিবার দিনগত রাতে আফছানা প্রতিদিনের ন্যায় রাতের খাবার শেষে মায়ের সাথে ঘুমিয়ে পড়ে এবং রবিবার সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে ঘরের আড়ার সাথে ওড়না পেচিয়ে আত্মহত্যা করে ।

এ বিষয়ে ভাণ্ডারিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মাসুমুর রহমান বিশ্বাস জানান, এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যুর মামলা রুজু করা হয়েছে। সুরাতহাল রিপোর্টের জন্য মৃত দেহ পিরোজপুরে পাঠানো হয়েছে।

সুরাতহাল রিপোর্টের পেলে মৃত্যুর মূল রহস্য জানা যাবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

ভান্ডারিয়ায় কলেজ ছাত্রীর মৃত্যুদেহ উদ্ধার

আপডেট : ১১:১৬:১৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৯ অগাস্ট ২০২১

পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়ায় আফছানা আক্তার (২২) নামে এক কলেজ শিক্ষার্থীর মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। আফছানা পিরোজপুর সরওয়ার্দী কলেজে অনার্স শেষ বর্ষের শিক্ষার্থী ও ভাণ্ডারিয়া উপজেলার নদমুল শিয়ালকাঠী ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের আলম হাওলাদারের মেয়ে।

আফছানার চাচা জামাল হাওলাদার জানান, গত ২০২০ সালে নয়ন নামে একটি ছেলের সাথে সম্পর্কের মাধ্যমে আফছানার বিয়ে হয়।

তার সাথে বুনিবোনাত না হওয়ায় ওই বছরের শেষের দিকে বিবাহ বিচ্ছেদ হয়। এর পরে উপজেলা পৌর শহরের ২ নম্বর ওয়ার্ড এলাকায় বসবাসরত খলিলুর রহমানের ছেলে সৌদী প্রবাসী সজিবের সাথে মোবাইল ফোনে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে এবং পারিবারিক ভাবে বিয়ের কথা বার্তা হয়।

কিন্তু কিছুদিন ধরে উভয়ের মধ্যে কথার কাটাকাটি হয়ে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। এতে আফছানা আত্মহত্যার পথ বেচেঁ নিয়েছে। আফসানার ছোট ভাই আফ্রিদী জানান, গতকাল রবিবার দিনগত রাতে আফছানা প্রতিদিনের ন্যায় রাতের খাবার শেষে মায়ের সাথে ঘুমিয়ে পড়ে এবং রবিবার সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে ঘরের আড়ার সাথে ওড়না পেচিয়ে আত্মহত্যা করে ।

এ বিষয়ে ভাণ্ডারিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মাসুমুর রহমান বিশ্বাস জানান, এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যুর মামলা রুজু করা হয়েছে। সুরাতহাল রিপোর্টের জন্য মৃত দেহ পিরোজপুরে পাঠানো হয়েছে।

সুরাতহাল রিপোর্টের পেলে মৃত্যুর মূল রহস্য জানা যাবে।