পৈতৃক সম্পত্তিতে হিন্দু নারীদের অধিকার দাবি

নেত্রকোনা প্রতিনিধি;
  • প্রকাশিত: ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১:২৮ অপরাহ্ণ | আপডেট: ৩ সপ্তাহ আগে
ছবি সংগৃহীত

নেত্রকোনায় বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ ও মহিলা ঐক্য পরিষদের আয়োজনে ধর্মীয় সংখ্যালঘু নারীদের উত্তরাধিকার বিষয়ক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার নেত্রকোনা জেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে এই মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় পৈতৃক সম্পত্তিতে হিন্দু নারীদের অধিকার দেয়ার দাবি জানান উভয় সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের যুগ্ম-সম্পাদক উপাধ্যক্ষ রেমন্ড এস আরেং, বিশেষ অতিথি ছিলেন নেত্রকোনা জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান প্রশান্ত কুমার রায়। এছাড়া সভা উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ মহিলা ঐক্য পরিষদের সভাপতি সুপ্রিয়া ভট্টাচার্য্য, প্রধান বক্তা ছিলেন মহিলা ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক দিপালী চক্রবর্তী, সহ-সভাপতি গীতা বিশ্বাস, হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ নেত্রকোনা জেলা শাখার সভাপতি সিতাংশু বিকাশ আচার্য্য।

সভায় রেমন্ড আরেং বলেন, মহিলা ঐক্য পরিষদ নারীদের অধিকারের বিষয়টি নিয়ে যে আন্দোলন করছে আমি তাকে সাধুবাদ জানাই। মুসলমান ও খ্রিস্টান সমাজে ছেলে-মেয়ে বাবার সম্পত্তিতে তাদের উত্তরাধিকার পায়। সেখানে কোথাও কোনো সমস্যা হচ্ছে না। কাজেই হিন্দু নারীদের উত্তরাধিকার আইন সংস্কার করে তাদের সম্পত্তি প্রাপ্তির অধিকার তাদেরকে ফিরিয়ে দিলে হিন্দুসমাজ ক্ষতিগ্রস্ত হবে না। সকল মানুষের অধিকারকে বিবেচনায় নিয়ে আজকে যারা আন্দোলনে নেমেছেন আমরা তাদের পাশে থাকবো।

প্রশান্ত কুমার রায় বলেন, সংখ্যালঘু নারীদের উত্তরাধিকার নিশ্চিত করতে মহিলা ঐক্য পরিষদকে আরো শক্তিশালীভাবে গড়ে তুলতে হবে। আপনাদের ন্যায্য দাবি আদায়ে নিজেদের একা ভাবার সুযোগ নেই। আর সবচেয়ে বড় কথা আপনাদের সাথে শেখ হাসিনা আছেন, আমাদের সাথে শেখ হাসিনা আছেন। মনে রাখতে হবে, সংখ্যালঘু মানেই সবাই সংখ্যালঘুর বন্ধু নয়, আবার সব সংখ্যাগুরুই সাম্প্রদায়িক নয়।

সুপ্রিয়া ভট্টাচার্য্য বলেন, বাংলাদেশ মহিলা ঐক্য পরিষদ সারাদেশে নারী নেতৃত্ব গড়ে তোলার কাজ হাতে নিয়েছে। সংখ্যালঘুদের সুরক্ষা প্রদান থেকে শুরু করে বিভিন্ন কার্যক্রম আমরা হাতে নিয়েছি। পাশাপাশি বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সকল দাবির প্রতি ঐক্যমত্য পোষণ করছি।

সভায় দিপালী চক্রবর্তী বলেন, আমরা নিজ নিজ অবস্থান থেকে জাগ্রত হই। অধিকারের জায়গাটিকে সুনিশ্চিত করি এবং আমাদের চাওয়া পাওয়াগুলো নিজে থেকে বলতে শিখি। আপনার চাওয়া আপনাকে চাইতে হবে। মহিলা ঐক্য পরিষদ উত্তরাধিকার সূত্রে প্রাপ্ত সম্পত্তিতে আপনাদের অধিকার আদায়ে মাঠে নেমেছে। সংবিধানে আছে রাষ্ট্রের প্রতিটি নাগরিক সমান অধিকার লাভ করবে। হিন্দু নারীদের উত্তরাধিকার সূত্রে প্রাপ্ত সম্পত্তি হতে বঞ্চিত করে আমরা কি প্রতিনিয়ত সংবিধান লঙ্ঘন করছি না?

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...