আল্টিমেটাম দিয়ে সড়ক ছাড়লো শিক্ষার্থীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক;
  • প্রকাশিত: ২৩ নভেম্বর ২০২১, ১২:৪৮ অপরাহ্ণ | আপডেট: ২ সপ্তাহ আগে

ছবি সংগৃহীত

গণপরিবহনে প্রজ্ঞাপন সহ ‌‘হাফ ভাড়া’ নিশ্চিতের দাবিতে দীর্ঘ সময় অবরোধ শেষে ৪৮ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিয়ে সড়ক ছেড়েছে শিক্ষার্থী। এর আগে মঙ্গলবার সকাল থেকে রাজধানীর সায়েন্সল্যাবসহ বিভিন্ন স্থানে সড়ক অবরোধ করে শিক্ষার্থীরা।

এদিকে শিক্ষার্থীদের অবরোধের কারণে রাজধানীজুড়ে তীব্র যানজট সৃষ্টি হয়। ভোগান্তিতে পড়েন বিভিন্ন গন্তব্যের যাত্রীরা।

সরেজমিনে দেখা যায়, বেলা সাড়ে ১২টার দিকে সড়ক অবরোধ করে ঢাকা কলেজ, সিটি কলেজ ও আইডিয়াল কলেজের শিক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থীরা বলছেন, মেয়েদের সাথে অশালীন আচরণ, শিক্ষার্থীদের বাসে উঠতে না দেয়া, শিক্ষার্থীদের উপর পুলেশের আক্রমণসহ বাসে ‌‘হাফ ভাড়া’ বাস্তবায়নের দাবিতে তারা রাস্তায় নেমেছে।

এসময় আইডিয়াল কলেজের এক শিক্ষার্থী বলেন, হাফ পাসের দাবি নিয়ে আমরা কয়েকদিন ধরে আন্দোলন করে আসছি। তবে আমাদের দাবি বাস্তবায়নে কোনো অগ্রগতি দেখছি না৷ গতকালও আমরা আন্দোলন করি এবং কয়েকটি বাসের লাইসেন্স চেক করলে প্রায় ১০টি বাসই লাইসেন্সবিহীন চলতে দেখা যায়। তখন আমরা বাস আটকে রাখলে পুলিশ আমাদের ওপর আক্রমণ করে। সে সময় আমাদের কয়েকজন শিক্ষার্থী আহত হয়।

ইঞ্জিনিয়ারিং ইউনিভার্সিটি স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থী জুবায়ের বলে, আমরা কেন বৈষম্যের শিকার হবো। এক কলেজের শিক্ষার্থী হাফ পাস পাবে, আরেক কলেজের শিক্ষার্থীরা পাবে না, এটা হতে পারে না। শিক্ষার্থী আমরা সবাই। তাই এটি নিয়ে সরকারিভাবে প্রজ্ঞাপন জারি করার দাবি জানাই।

আরো এক শিক্ষার্থী বলে, এটি আমাদের অধিকার। বিশ্বের অন্যান্য দেশে যেখানে শিক্ষার্থীদের ভাড়াই নেয়া হয় না সেখানে আমরা হাফ ভাড়া কেন দিতে পারবো না। কেন আমাদের দেখলে বাসের চালক হেলপাররা গাড়িতে উঠতে দেয় না।

এর আগে বেলা ১১টার দিকে রাজধানীর বকশিবাজার মোড়ে একই ইস্যুতে অবস্থান কর্মসূচি পালন করে শিক্ষার্থীরা। এরপর সাইন্সল্যাব মোড়ে সড়ক অবরোধ করে।

দুপুর ২টার দিকে সরকারিভাবে প্রজ্ঞাপন জারি করে সারাদেশের সব গণপরিবহনে হাফ ভাড়া কার্যকর ও ছাত্রী এবং নারীদের জন্য অবাধ-নিরাপদ যাত্রা নিশ্চিত করার দাবিতে ৪৮ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দেয় শিক্ষার্থীরা।

দাবি কার্যকর না হলে ২৫ নভেম্বর সকালে আবারও নীলক্ষেতে অবস্থান কর্মসূচির ঘোষণা দেয় তারা। পরে অবস্থান থেকে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে নীলক্ষেতে যায় শিক্ষার্থীরা। সেখানে গিয়ে দুপর ২টার দিকে সমাবেশের মাধ্যমে কর্মসূচি শেষ হয়।

এদিকে শিক্ষার্থীদের অবরোধে সৃষ্ট যানজটে ভোগান্তি পড়েন প্রয়োজনীয় কাজে বের হওয়া নগরবাসী। এরকম একজন ইমরান হোসেন। তিনি রাজধানীর শুক্রাবাদ এলাকা থেকে লালবাগ যাচ্ছিলেন জরুরি কাজে। দুপুর ২টার মধ্যে গন্তব্যে পৌঁছানোর প্রয়োজন ছিলো তার। কিন্তু তিনি মাঝপথেই আটকা পড়েন।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...