ঢাকা ০২:১৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শিক্ষার্থীদের জন্য বাস সার্ভিসের দাবি জবি ছাত্র অধিকার পরিষদের

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট : ০৭:০০:১৭ অপরাহ্ন, সোমাবার, ৫ জুলাই ২০২১
  • / 457

::তৌফিকুর রহমান, জবি::

কঠোর লকডাউনে ঢাকায় আবদ্ধ শিক্ষার্থীদের জন্য জবি প্রশাসনের কাছে বাস সার্ভিসের দাবি জানিয়েছে ছাত্র অধিকার পরিষদ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা।

সোমবার ছাত্র অধিকার পরিষদ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাধারণ সম্পাদক আবু বকর স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এই দাবি জানান তারা।

বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, সাম্প্রতিক করোনা সংকট মোকাবিলায় কঠোর শাট-ডাউন সহ নানা কড়া পদক্ষেপের ফলে অর্থনীতি বিপর্যস্থ হয়ে পড়েছে। অসংখ্য মানুষের রুজি-রোজগারে টান পড়েছে। উৎপাদনশীলতাও মুখ থুবড়ে পড়ছে। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও তাদের পরিবার এই সংকটের বাইরে নয়। যে সব শিক্ষার্থীরা খÐকালীন চাকরি কিংবা টিউশনি করে নিজের শিক্ষা খরচ বহন করতো এই সংকটে অধিকাংশ ই বন্ধ রয়েছে এবং তাদের পরিবার গুলোর অবস্থা নাজুক।

বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিকাংশ শিক্ষার্থী অজপাড়াগাঁয়ের। ঠিকমত বিদুৎ যেখানে পৌঁছায়নি সেখানে ইন্টারনেট সেবা বিলাসিতা মাত্র। সে জন্যে অন-লাইন ক্লাস শুরু হওয়াতে অধিকাংশ শিক্ষার্থী ঢাকা মুখী হয়েছে। অন্য দিকে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় ৯৫ % শিক্ষার্থী টিউশনি করিয়ে তাদের শিক্ষা খরচসহ পরিবারের ব্যায়ভার বহন করে। সেই তাগিদে তারাও ঢাকায় অবস্থান করে আসছে। এছাড়া সশরীরে পরীক্ষা হওয়ার কথা থাকায় বেশিরভাগ শিক্ষার্থী ঢাকায় আগে থেকে মেস বাসা ভাড়া করে, কেননা অনাবাসিক বিশ্ববিদ্যালয় হওয়ায় শিক্ষার্থীরা সর্বদা আবাস্থল নিয়ে অনিশ্চয়তার মধ্যে থাকে।

কিন্তু সাম্প্রতিক কঠোর শাট-ডাউন অবস্থায় গ্রামে যাওয়ার পথ সম্পূর্ণ রুদ্ধ। পরিবারের সাথে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতে শিক্ষার্থীরা বাড়ি যেতে উদগ্রীব হয়ে আছে। এ বিষয়ে শিক্ষার্থীরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যেমে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে দাবি করে আসছে। কেননা দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় তাদের শিক্ষার্থীদের পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা করলেও এই ক্ষেত্রে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন পুরোপুরি নিরব ভূমিকা পালন করছে।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে জোর দাবি জানাচ্ছি মানবিক দিক বিবেচনা করে শিক্ষার্থীদের বিভাগীয় শহরে বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব বাস দিয়ে পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা করুন।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

শিক্ষার্থীদের জন্য বাস সার্ভিসের দাবি জবি ছাত্র অধিকার পরিষদের

আপডেট : ০৭:০০:১৭ অপরাহ্ন, সোমাবার, ৫ জুলাই ২০২১

::তৌফিকুর রহমান, জবি::

কঠোর লকডাউনে ঢাকায় আবদ্ধ শিক্ষার্থীদের জন্য জবি প্রশাসনের কাছে বাস সার্ভিসের দাবি জানিয়েছে ছাত্র অধিকার পরিষদ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা।

সোমবার ছাত্র অধিকার পরিষদ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাধারণ সম্পাদক আবু বকর স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এই দাবি জানান তারা।

বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, সাম্প্রতিক করোনা সংকট মোকাবিলায় কঠোর শাট-ডাউন সহ নানা কড়া পদক্ষেপের ফলে অর্থনীতি বিপর্যস্থ হয়ে পড়েছে। অসংখ্য মানুষের রুজি-রোজগারে টান পড়েছে। উৎপাদনশীলতাও মুখ থুবড়ে পড়ছে। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও তাদের পরিবার এই সংকটের বাইরে নয়। যে সব শিক্ষার্থীরা খÐকালীন চাকরি কিংবা টিউশনি করে নিজের শিক্ষা খরচ বহন করতো এই সংকটে অধিকাংশ ই বন্ধ রয়েছে এবং তাদের পরিবার গুলোর অবস্থা নাজুক।

বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিকাংশ শিক্ষার্থী অজপাড়াগাঁয়ের। ঠিকমত বিদুৎ যেখানে পৌঁছায়নি সেখানে ইন্টারনেট সেবা বিলাসিতা মাত্র। সে জন্যে অন-লাইন ক্লাস শুরু হওয়াতে অধিকাংশ শিক্ষার্থী ঢাকা মুখী হয়েছে। অন্য দিকে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় ৯৫ % শিক্ষার্থী টিউশনি করিয়ে তাদের শিক্ষা খরচসহ পরিবারের ব্যায়ভার বহন করে। সেই তাগিদে তারাও ঢাকায় অবস্থান করে আসছে। এছাড়া সশরীরে পরীক্ষা হওয়ার কথা থাকায় বেশিরভাগ শিক্ষার্থী ঢাকায় আগে থেকে মেস বাসা ভাড়া করে, কেননা অনাবাসিক বিশ্ববিদ্যালয় হওয়ায় শিক্ষার্থীরা সর্বদা আবাস্থল নিয়ে অনিশ্চয়তার মধ্যে থাকে।

কিন্তু সাম্প্রতিক কঠোর শাট-ডাউন অবস্থায় গ্রামে যাওয়ার পথ সম্পূর্ণ রুদ্ধ। পরিবারের সাথে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতে শিক্ষার্থীরা বাড়ি যেতে উদগ্রীব হয়ে আছে। এ বিষয়ে শিক্ষার্থীরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যেমে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে দাবি করে আসছে। কেননা দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় তাদের শিক্ষার্থীদের পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা করলেও এই ক্ষেত্রে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন পুরোপুরি নিরব ভূমিকা পালন করছে।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে জোর দাবি জানাচ্ছি মানবিক দিক বিবেচনা করে শিক্ষার্থীদের বিভাগীয় শহরে বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব বাস দিয়ে পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা করুন।