ঢাকা ০৪:৩৩ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ভুয়া সেনা সদস্যকে পুলিশে দিল জনতা

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট : ০৭:৪৭:১২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৮ মে ২০২১
  • / 191
::সিলেট প্রতিনিধি::

সিলেট মহানগরীর এয়ারপোর্ট থানাধীন ধোপাগুল এলাকা থেকে সেনাবাহিনীর ভুয়া পরিচয়ধারী এক প্রতারককে আটক করে পুলিশে দিয়েছে দিয়েছে জনতা। ওমর ফারুক তালুকদার (২৩) নামের ওই যুবক শেরপুর জেলাধীন হেরুয়া বাজারীপাড়া এলাকার লুৎফর রহমান তালুকদারের ছেলে।

পুলিশ জানায়, গত কয়েকমাস আগে ফেসবুকের মাধ্যমে ধুপাগুল এলাকার বাসিন্দা ইলিয়াছুর রহমানের ছোট মেয়ে খাদিজা রহমান উর্মির (১৬) সাথে ওমর ফারুক নামের ওই যুবকের পরিচয় হয়।

এরই প্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার (২৭ মে) রাত সাড়ে ১১টার দিকে ওমর ফারুক নামের ওই যুবক নিজেকে সেনাবাহিনীর অফিসার পরিচয় দিয়ে এয়ারপোর্ট থানাধীন ধোপাগুলস্থ ইলিয়াছুর রহমানের বাড়িতে বিয়ে করার জন্য প্রবেশ করার চেষ্টা করলে তাকে দিনের বেলা আসার জন্য বলা হয়।

পরবর্তীতে শুক্রবার (২৮ মে) সকাল ১০টার দিকে সে পুনরায় ইলিয়াছুর রহমানের বাড়িতে গেলে বাড়ির লোকজন তাকে সেনাবাহিনীতে চাকরির প্রমাণপত্র দেখাতে বললে সে ফের বাড়ি থেকে বের হয়ে যায়। এরপর দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ওই যুবক সেনাবাহিনীর পোশাক পরে বাড়ির আশপাশে ঘুরাঘুরি করাকালে বাড়ির তত্ত্বাবধায়ক মো. আজিম উদ্দিন তাকে বাড়িতে ডেকে নিয়ে যান। যোহরের নামাজের পর তার বাবা-মায়ের মুঠোফোনে যোগাযোগ করে জানা যায় যে, সে কখনো সেনাবাহিনী কিংবা সরকারি কোনো চাকরি করেনি। মূলত প্রতারণার উদ্দেশ্যে সে সেনাবাহিনীর পোশাক পরিধান করে। পরে ভুক্তভোগী পরিবারের লোকজনের সন্দেহ হওয়ায় তাকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেন।

এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন বলে জানিয়েছেন সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ পুলিশ কমিশনার (মিডিয়া) বিএম আশরাফ উল্যাহ তাহের।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

ভুয়া সেনা সদস্যকে পুলিশে দিল জনতা

আপডেট : ০৭:৪৭:১২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৮ মে ২০২১
::সিলেট প্রতিনিধি::

সিলেট মহানগরীর এয়ারপোর্ট থানাধীন ধোপাগুল এলাকা থেকে সেনাবাহিনীর ভুয়া পরিচয়ধারী এক প্রতারককে আটক করে পুলিশে দিয়েছে দিয়েছে জনতা। ওমর ফারুক তালুকদার (২৩) নামের ওই যুবক শেরপুর জেলাধীন হেরুয়া বাজারীপাড়া এলাকার লুৎফর রহমান তালুকদারের ছেলে।

পুলিশ জানায়, গত কয়েকমাস আগে ফেসবুকের মাধ্যমে ধুপাগুল এলাকার বাসিন্দা ইলিয়াছুর রহমানের ছোট মেয়ে খাদিজা রহমান উর্মির (১৬) সাথে ওমর ফারুক নামের ওই যুবকের পরিচয় হয়।

এরই প্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার (২৭ মে) রাত সাড়ে ১১টার দিকে ওমর ফারুক নামের ওই যুবক নিজেকে সেনাবাহিনীর অফিসার পরিচয় দিয়ে এয়ারপোর্ট থানাধীন ধোপাগুলস্থ ইলিয়াছুর রহমানের বাড়িতে বিয়ে করার জন্য প্রবেশ করার চেষ্টা করলে তাকে দিনের বেলা আসার জন্য বলা হয়।

পরবর্তীতে শুক্রবার (২৮ মে) সকাল ১০টার দিকে সে পুনরায় ইলিয়াছুর রহমানের বাড়িতে গেলে বাড়ির লোকজন তাকে সেনাবাহিনীতে চাকরির প্রমাণপত্র দেখাতে বললে সে ফের বাড়ি থেকে বের হয়ে যায়। এরপর দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ওই যুবক সেনাবাহিনীর পোশাক পরে বাড়ির আশপাশে ঘুরাঘুরি করাকালে বাড়ির তত্ত্বাবধায়ক মো. আজিম উদ্দিন তাকে বাড়িতে ডেকে নিয়ে যান। যোহরের নামাজের পর তার বাবা-মায়ের মুঠোফোনে যোগাযোগ করে জানা যায় যে, সে কখনো সেনাবাহিনী কিংবা সরকারি কোনো চাকরি করেনি। মূলত প্রতারণার উদ্দেশ্যে সে সেনাবাহিনীর পোশাক পরিধান করে। পরে ভুক্তভোগী পরিবারের লোকজনের সন্দেহ হওয়ায় তাকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেন।

এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন বলে জানিয়েছেন সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ পুলিশ কমিশনার (মিডিয়া) বিএম আশরাফ উল্যাহ তাহের।